Cyclone Remal Live Update: কখন কোথায় আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় রিমাল? আবহাওয়ার লেটেস্ট আপডেট জেনে নিন

আমাদের WhatsApp Group-এ যুক্ত হন👉 Join Now

Cyclone Remal Live Update: মে মাস যেন ঘূর্ণিঝড়েরই মাস। ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় রেমাল (Remal Cyclone)। এর আগে ২০০৯ সালের মে মাসেই এসেছিল আয়লা। এছাড়াও ২০২০ সালের এই মে মাসেই এসেছিল সেই ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় আমফান। তছনছ করে দিয়েছিল চতুর্দিক। এবারও সেই মে মাসেই আসছে ঘূর্ণিঝড় রেমাল (Remal Cyclone)।

বঙ্গোপসাগরে এই ঘূর্ণিঝড় রেমাল (Remal Cyclone) জন্ম নিচ্ছে। শনিবার মধ্যরাত থেকেই এটি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে এবং শক্তিশালী রূপ ধারণ করে রবিবার বাংলাদেশের খেপুপাড়া ও পশ্চিমবঙ্গের সাগরদ্বীপে এই ঘূর্ণিঝড়ের ল্যান্ডফল হবে বলে জানা যাচ্ছে।

এই রেমাল (Remal Cyclone) ঘূর্ণিঝড়ের ল্যান্ডফল বাংলাদেশের মাটিতেই হবে এমনটাই অনুমান করছেন আবহাওয়া দফতর কিন্তু এর প্রভাব পড়বে দক্ষিণবঙ্গের অধিকাংশ জেলায়। ঘূর্ণিঝড় রেমাল (Remal Cyclone) এর প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গের বেশিরভাগ জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এই সপ্তাহের শুরুতেই আবহাওয়া দফতর জানিয়েছিল একটি ঘূর্ণিঝড় তৈরি হচ্ছে। কিন্তু আবহাওয়া দফতরের মত ছিল এটি একটি নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। কিন্তু এখন এটি বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হচ্ছে এমনটাই জানা যাচ্ছে আবহাওয়া দফতর সূত্রে।

ভোটের আবহের মধ্যেই ঘূর্ণিঝড়

শনিবার দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় যেমন বিষ্ণুপুর, বাঁকুড়া, মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, ঘাটাল, তমলুক, কাঁথি প্রভৃতি লোকসভা কেন্দ্রে ভোট। ভোটের মাঝেই দক্ষিণবঙ্গে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব দেখা দিচ্ছে। কিন্তু এই ঘূর্ণিঝড়ের জন্য ভোট বিঘ্নিত হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।

আমাদের WhatsApp Group-এ যুক্ত হন👉 Join Now

মৎস্যজীবীদের সতর্কীকরণ

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মৎস্যজীবীদের এই মুহূর্তে সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে বারণ করছেন। তিনি আরও বলছেন যারা বঙ্গোপসাগরে আছেন তারা ফিরে যান। ঘূর্ণিঝড় আসতে পারে।

আবহাওয়া দফতরের তরফ থেকে জানানো হচ্ছে

পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট হওয়া নিম্নচাপ উত্তর-উত্তর পূর্ব দিকে সরে যাচ্ছে এবং গভীর নিম্নচাপে রূপান্তরিত হয়েছে। এখন সেটি ১৭.৪ ° অক্ষাংশ এবং ৮৯.৭° দ্রাঘিমাংশের কাছে বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত হচ্ছে। এটি বাংলাদেশের খেপুপাড়া,পশ্চিমবঙ্গের সাগরদ্বীপ উপকূলের দক্ষিণ-দক্ষিণ পূর্ব দিকে এবং পশ্চিমবঙ্গের ক্যানিং এর কাছে আছড়ে পড়তে পারে বলে জানা যাচ্ছে।

কোন কোন জেলায় ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা সবথেকে বেশি

কলকাতা আবহাওয়া দফতরের মতে রবিবার সকাল থেকেই উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, কলকাতা প্রভৃতি জেলাগুলিতে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে এবং ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

রেমাল (Remal Cyclone) কন্ট্রোল রুম

প্রশাসন থেকে ঘূর্ণিঝড় রেমালের জন্য সতর্কতা জারি করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবা পশ্চিমবঙ্গ এবং ওড়িশা প্রশাসনের সঙ্গে একটি বৈঠকে বসেন। তিনি এই দুই রাজ্যের প্রশাসনকেই সতর্কতা জারি করার নির্দেশ দিয়েছেন এবং জেলাশাসকদের কন্ট্রোলরুম চালু করার নির্দেশ দিয়েছেন।

কন্ট্রোল রুমের নম্বর

১০৭০ এবং (০৩৩) ২২১৪৩৫৩৫

ঘূর্ণিঝড়ের লাইভ ট্র্যাকার

IMD এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে আপনি এই ঘূর্ণিঝড়টিকে লাইভ ট্র্যাক করতে পারবেন । অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি হল http://ddgmui.imd.gov.in/dwr_img/GIS/cyclone.html

আলিপুর আবহাওয়া দফতর থেকে অনুমান করা হচ্ছে, এই ঘূর্ণিঝড়টি সাগরদ্বীপ ও বাংলাদেশের খেপুপাড়ার মাঝে আছড়ে পড়বে। আছড়ে পড়ার সময় এর গতিবেগ থাকবে ১৩৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা। এর ফলে রবিবার ও সোমবার দক্ষিণবঙ্গে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি এবং মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

রবিবার কলকাতা, হুগলি, হাওড়া, নদীয়া, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব বর্ধমান প্রভৃতি জেলায় ২০০ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে। রবিবার সারাদিন ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে এবং সাথে ঝোড়ো হাওয়া বইবে। সোমবারও একই পরিস্থিতি থাকবে। তবে মঙ্গলবার থেকে আবহাওয়ার পরিবর্তন ঘটতে পারে।