কীভাবে আবহাওয়াবিদ হতে পারবেন? কোন কোর্স করতে হবে? মাইনে কত? জেনে নিন বিস্তারিত

আমাদের WhatsApp Group-এ যুক্ত হন👉 Join Now

How To Become Meteorologist: আপনি হয়তো টিভির পর্দায় আবহাওয়ার পূর্বাভাস প্রায়ই শুনে থাকেন। এছাড়াও নিশ্চয়ই খবরের কাগজেও আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেখে থাকবেন। তবে কখনও কি ভেবেছেন আবহাওয়া সম্পর্কে নির্ভুল তথ্য গুলি কারা দেন?

আবহাওয়া সম্পর্কে এইরকম নির্ভুল তথ্যগুলি যারা দেন তাদের বলা হয় আবহাওয়াবিদ। কিন্তু জানেন কি যে এই আবহাওয়াবিদ হওয়া যায় কি করে? এই প্রতিবেদনে আজ আমরা আপনাদের জানাব যে আবহাওয়াবিদ হওয়ার জন্য কি কোর্স করতে হয়।

আবহাওয়াবিদ্যা হল বায়ুমণ্ডলের অধ্যয়ন। অর্থাৎ বায়ুমণ্ডল, বায়ুমণ্ডলীয় ঘটনা এবং আমাদের আবহাওয়ার উপর বায়ুমণ্ডলীয় প্রভাবের অধ্যয়ন। আবহাওয়াবিদ্যা হল বায়ুমণ্ডলীয় বিজ্ঞানের একটি উপশাখা, যা বায়ুমণ্ডলের সমস্ত গবেষণাকে কভার করে।

আবহাওয়াবিদরা কী করেন?

আপনি যদি ভেবে থাকেন আবহাওয়াবিদরা শুধুমাত্র আপনাকে কবে রোদ থাকবে, কবে বৃষ্টি হবে এগুলি সম্বন্ধে জানায় তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন। আবহাওয়াবিদরা পৃথিবীর ভৌত পরিবেশ এবং বায়ুমণ্ডলের পাশাপাশি পৃথিবীতে কিরকম তাদের প্রভাব, বিকাশ, পরিণতি ঘটবে সেইগুলি নিয়ে অধ্যয়ন করেন। বায়ুর চাপ, বৃষ্টিপাত, তাপমাত্রা ইত্যাদি পরিবর্তনের সাথে আবহাওয়ার যে পরিবর্তন ঘটে তা কৃত্রিম গ্রহ, উপগ্রহ থেকে প্রাপ্ত চিত্র এবং ডেটা গুলি অধ্যায়ন করে তারা আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেন।

আবহাওয়াবিদ হবেন কিভাবে?

আপনি যদি আবহাওয়া বিদ্যা বিষয়টি নিয়ে অধ্যয়ন করেন তাহলে আপনি আবহাওয়া দফতরে একটি ভালো চাকরি পাবেন। এর জন্য আপনাকে দ্বাদশ শ্রেণীতে বিজ্ঞান বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করতে হবে। এরপর আপনাকে একটি ভালো কলেজ থেকে বিএসসি পাস করে থাকতে হবে।

আমাদের WhatsApp Group-এ যুক্ত হন👉 Join Now
  • ফিজিক্যাল মেটেরোলজি: বায়ুমণ্ডলের বিভিন্ন অপটিক্যাল, বৈদ্যুতিক বিষয়গুলি ছাড়াও মেঘ এবং বৃষ্টিপাতের ঘটনাকে অধ্যয়ন করা হয়।
  • এগ্রিকালচার মেটেরোলজি: ফসল উৎপাদনের সাথে মাটি ব্যবস্থাপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ জলবায়ু এবং আবহাওয়ার সম্পর্কে অধ্যয়ন করা হয়।
  • স্যাটেলাইট মেটেরোলজি: স্যাটেলাইটের মাধ্যমে রিমোট সেন্সিং যন্ত্র থেকে যে যে ডেটাগুলি পাওয়া যায় তার উপর ভিত্তি করে মহাসাগর এবং বায়ুমণ্ডলগুলি অধ্যায়ন করা হয়।
  • ক্লাইমেটোলজি: নির্দিষ্ট এলাকার জলবায়ু এবং তার পরিবর্তন নিয়ে অধ্যয়ন করা হয়।
  • মেরিন মেটেরোলজি: মহাসাগর এবং বায়ুমন্ডলের সাথে সামুদ্রিক পরিবেশের অবস্থার মিথস্ক্রিয়া সম্পর্কে অধ্যয়ন করা হয়।
  • সিনপটিক মেটেরোলজি: ঘূর্ণিঝড় এবং অ্যান্টিসাইক্লোন এর মত সমস্যাগুলি নিয়ে অধ্যায়ন করা হয়।
  • অ্যাপ্লায়েড মেটেরোলজি: বায়ু দূষণ ও নিয়ন্ত্রণ,নগর পরিকল্পনা, শীতাতাপ নিয়ন্ত্রণ, বিমানের নকশা প্রভূতি বিষয়গুলি নিয়ে অধ্যয়ন করা হয়।
  • ডায়নামিক মেটেরোলজি: মেঘ, বৃষ্টি, তাপমাত্রা প্রভৃতি কিভাবে মানুষের কার্যকলাপকে প্রভাবিত করে সেই বিষয়গুলি নিয়ে অধ্যয়ন করা হয়।

আবহাওয়াবিদ হওয়ার জন্য কি যোগ্যতা লাগে?

আবহাওয়াবিদ হওয়ার জন্য প্রার্থীকে গণিত এবং পদার্থবিদ্যার উপর ভালো দক্ষ হতে হবে। ভারতে বর্তমানে আবহাওয়াবিদদের সংখ্যা খুবই কম। তাই এই ঘাটতি পূরণ করার জন্য অনেক কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়তে এই কোর্স করানো হচ্ছে। যে কোন সরকার স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে বিজ্ঞান বিষয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে থাকলে স্নাতক কোর্সের জন্য ভর্তি হওয়া যাবে। এক্ষেত্রে আপনাকে বিএসসি করে থাকতে হবে। এরপর স্নাতকোত্তর ডিগ্রি আপনি চাইলে করতে পারবেন। পড়াশোনা শেষ করার পর বিজ্ঞানী বা গবেষক হিসেবে অনেক চাকরির সুযোগ রয়েছে।

আবহাওয়াবিদদের বেতন

একজন ফ্রেশার প্রথমে মাসিক ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পাবেন। এরপর কাজের অভিজ্ঞতা হয়ে গেলে মাসিক ৬০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত বেতন পাওয়া যেতে পারে।

কোন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই বিষয় পড়ানো হয়

  • বায়ুমণ্ডল ও মহাসাগরীয় বিজ্ঞান কেন্দ্র, বেঙ্গালুরু
  • দেবী অহিল্যা বিশ্ববিদ্যালয়, ইন্দোর
  • শিবাজি বিশ্ববিদ্যালয়, কোল্হাপুর
  • কোচিন বিশ্ববিদ্যালয়, কোচি
  • মনিপুর ইউনিভার্সিটি, ইম্ফল
  • ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স, বেঙ্গালুরু
  • অন্ধ্র ইউনিভার্সিটি, বিশাখাপত্তনম
  • পাঞ্জাব ইউনিভার্সিটি, পাতিয়ালা
  • আর্যভট্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট অব অবজারভেশনাল সায়েন্সেস, উত্তরাখন্ড
  • ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ ট্রপিক্যাল মেটিওরোলজি, পুনে
  • আইআইটি দিল্লি
  • আইআইটি খড়গপুর, পশ্চিমবঙ্গ